, সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

সোমবার

বিষয় :

প্রকাশ :  ২০১৮-০৯-২২ ০৬:৫৫:২১

গাছে বেঁধে প্রতিপক্ষের স্ত্রীকে পেটালেন যুবলীগ নেতা!

বঙ্গনিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক: পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে স্থানীয় যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে জমি-জমা নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের স্ত্রীকে গাছে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এ সময় তার মেয়েকেও পিটিয়ে জখম করা হয়।

শুক্রবার উপজেলার ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের ভূইয়ার হাওলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বশির মোল্লার পরিবারের সঙ্গে একই গ্রামের আব্দুর রহিম হাওলাদারের জমি-জমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে দির্ঘদিন যাবৎ আদালতে পাল্টাপাল্টি মামলাও চলমান রয়েছে।

গতকাল শুক্রবার সকাল ৭টায় যুবলীগ নেতা বশির ওই বিরোধপূর্ণ জমির গাছ থেকে নারকেল পাড়তে যান। কিন্তু প্রতিপক্ষ রহিম হাওলাদারের স্ত্রী হালিদা বেগম তাতে বাধা দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে লোকজন নিয়ে হালিদাকে টেনে-হেঁচড়ে নিজ বাড়িতে নিয়ে যান বশির। পরে তার পরিবারের লোকজন হালিদাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে বেধড়ক মারধর করেন।

এ খবর শুনে হালিদার স্বামী রহিম হাওলাদার ও তার মেয়ে রহিমা বেগম ঘটনাস্থলে ছুটে যান। পরে তার মেয়েকেও পিটিয়ে জখম করা হয়। বর্তমানে গুরতর আহত অবস্থায় হালিদা বেগম (৪৫) ও মেয়ে রাহিমা বেগম (২২) পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

তবে অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা বশির মোল্লা বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

রাঙ্গাবালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিলন কৃষ্ণ মিত্র জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরো সংবাদ